মন নিয়ন্ত্রণ

কথা বা অঙ্গভঙ্গি দিয়ে যন্ত্রপাতি নিয়ন্ত্রণ এখন অনেকটাই ডালভাত। কিছুদিনের মধ্যেই আমরা হয়তো গ্যাজেট নিয়ন্ত্রণ করবো আমাদের মন দিয়ে। আমরা শুধু মনে মনে হয়তো ভাববো যে টিভিটা চালু হয়ে যাক, আর সাথে সাথেই হয়তো টিভিটা ঠিকই নিজে নিজে চালু হয়ে যাবে। অথবা কোন চ্যানেলের কথা ভাবতেই হয়তো সেই চ্যানেলে বদলে যাবে টিভি। কার্নেগি মেলন ইউনিভার্সিটির দুই গবেষক মার্শেল জাস্ট এবং টিম মিচেল সেই পথে অনেকটাই এগিয়ে গেছেন।

তারা এমন একটি যন্ত্র উদ্ভাবন করেছেন (এমআরআই) যেটা মনে মনে যা চিন্তা করা হচ্ছে সেটা ধরতে পারে। তাদের পরীক্ষায় যারা অংশ নিয়েছেন, তাদেরকে স্ক্রিনে ২০টি ছবি দেখানো হয়। তারপর অংশগ্রহনকারীদেরকে বলা হয় যে তাদেরকে যে ছবি দেখানো হবে, সেটার কোন গুণগত মান চিন্তা করতে। আর কম্পিউটার সেটা বের করার চেষ্টা করবে। পরীক্ষা থেকে দেখা গেছে কম্পিউটার অংশগ্রহনকারীদের মনের কথা ১০০ ভাগ ক্ষেত্রেই ঠিকভাবে বলে দিতে পারছে।

তাদের পরীক্ষায় দেখা যাচ্ছে যে, মানুষের ভাষা যাই হোক না কেন, বা কোন এক লোক যেভাবেই বেড়ে উঠুক না কেন, কোন কোন জিনিস আমরা যখন চিন্তা করি, তখন আমাদের সবার মস্তিষ্কের কিছু অংশ একইভাবে সাড়া দেয়। যেমন ধরা যাক, স্ট্রবেরির ক্ষেত্রে আমরা হয়তো ভাবতে পারি ‘লাল’, ‘খাব’ অথবা ‘এক হাতে ধরবো’ ইত্যাদি। মস্তিষ্কের কোন অংশটি কোন ধরনের কথা চিন্তা করার জন্য সাড়া দেয়, সেটা কম্পিউটারের খুব ভালো করে জানা আছে। কম্পিউটারটি এছাড়াও কোন সংখ্যাটি আপনি ভাবছেন অথবা ১৫টি আবেগের মধ্যে কোন আবেগের কথা আপনি ভাবছেন, সেটাও খুব সহজেই ধরতে পারে।

তবে এই প্রযুক্তি সর্বসাধারনের কাছে খুব শীঘ্রই পৌছাচ্ছে না, কারণ এর বাস্তবায়ন নিয়ে রয়েছে বেশ কিছু নৈতিক প্রশ্ন। এখনো পর্যন্ত এই প্রযুক্তির ব্যবহার মূলত প্রতিবন্ধীদের মনের কথা প্রকাশের সুবিধার জন্য বা আইন বিভাগের প্রয়োজনে মিথ্যা কথা সনাক্ত করার কাজে সীমাবদ্ধ থাকছে।

উৎস: সায়েন্টিফিক অ্যামেরিকান, ডিসেম্বর ২০১২